আজ ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

আমি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলছি,,,,,,

প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন নান্নু : কিশোরগঞ্জ জেলা হোসেনপুর উপজেলা কৃষক শ্রমিক জনতালীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূইয়া বলেন  আমি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলছি,,,,,,, আমি বঙ্গবীর হতে চাইনি,আমি বীরের খেতাপে ভূষিত হতে চাইনি, আমি মন্ত্রিত বা রাষ্ট্র প্রধান হতে চাইনি, আমি চেয়েছিলাম বাঙ্গালির মুক্তি বাংলার আঁকাশে উড়া লাল সবুজের স্বাধীন পতাকা, আমি পেরেছিলাম বটে, তুমুল উন্মাদনায় পশু পাখির মত গুলি করে হত্যা করেছিলাম, ভীনদেশী নরকীয় দোসরদের ,জন্মভূমি টাংগাইলকে হানাদার মুক্ত করে,ভারতীয় বাহীনির সাহায্য বেতিরেকে,ঢাকা আক্রমনের পদক্ষেপ নিয়েছিলাম,মুক্তি যুদ্ধের অন্যতম সমর নায়ক হিসেবে টাইগার খ্যাত উপাদিতে ভূষিত করেছিলেন আমাকে,স্বাধীনতা কামী জনগন।
তারুণ্যের তেজসদিপ্ত ঝাকড়া চুলে রাইফেল কাঁধে ছুটে বেরিয়েছি এ পার ও পার বাংলায়,মুক্তি যোদ্ধাদের নিয়ে এ দেশ হানাদার মুক্ত করে,বঙ্গবন্ধুর চরণতলে রাজকীয় ভাবে সমস্ত অস্ত্র জমা দিয়েছিলাম।জাতির জনক আমাকে বুকে চেপে ধরে স্বাধীনতার ক্রনদনে কেঁদে বুক ভাসিয়ে ছিলেন।যে দেশ নয় মাস যুদ্ধকরে বাঁচালাম মা বোনের ইজ্জত,,ছিনিয়ে আনলাম স্বাধীনতার পতাকা,রাষ্ট্রিয় মর্যাদায় তুলে ধরলাম এ দেশ কে বিশ্বের মানচিত্রে অথচ সেই দেশের কিছু সার্থান্নেসী নারকিয় শকুনেরপাল মোদের অর্জিত স্বাধীনতাকে আজ লুন্ঠিত করতেচায়,,,এ দেশের গনতন্ত্রকে ওরা গলাটিপে হত্যা করতে চায়,ওরা কারা,,,?
আমি বঙ্গবন্ধুকে ডেকে বলি,হে পিতাজি,জমাকৃত অস্ত্রদিয়ে আমাকে আর একবার পাঠিয়েদিন,
ওদের কলিজা হৃদপিন্ড ঝাজরাকরে দিতে।যে দেশ আমরা যুদ্ধ না করলে বাংলাদেশের জন্মহত না,
অথচ ওরা কারা,,?যে স্বাধীনতার বিপক্ষে কথা বলে,ওরা পাকসেনাদের দোসর !,তবেকি ওদের বিরোদ্ধে আবার বিদ্রোহ ঘোষনা করতে হবে!মুক্তিযোদ্ধের প্রকৃতি ইতিহাস বোলেটে ভরে খাওয়ে দিতে হবে একাত্তরের মত করে!!বঙ্গবন্ধু,কোনো কথা বলেন না,কেবল ফ্যাল ফ্যাল করে তাকিয়ে থাকেন আমার মুখের পানে,
পিতার চোখের দুঃখের জলে ভিজে আমার ক্ষতবিক্ষত হৃদয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category