আজ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ওবায়দুল কাদেরের বাড়ির সামনে ককটেল বিস্ফোরণ

প্রতিনিধি জুবায়ের বয়ান : গতকাল রাতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের পৈতৃক বাড়ির সামনে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে একদল দুর্বৃত্তরা। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার বড় রাজারামপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।জানা গেছে, বসুরহাট-দাগন ভূঁইয়া সড়কের ওপর এ ঘটনা ঘটেলেও কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। স্থানীয় লোকজন ককটেল বিস্ফোরণের একটি শব্দ শুনেছেন।এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি সাজ্জাদ রোমন জানান, ‘মন্ত্রীর বাড়ির সামনের বসুরহাট-দাগনভূঞা সড়কে একটি ফটকাবাজি অথবা ককটেল বিস্ফোরণ হয়েছে। তবে কারা ওই বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।এ ব্যাপারে বাড়িতে থাকা সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই শাহাদাৎ হোসেন বলেন, রাত ১০টার দিকে পরপর কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পাই। এতে আমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। কিন্তু কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। আরও পড়ুন= এবার তালেবান নিয়ন্ত্রিত আফগান সরকার তাদের কর্মচারীদের দাড়ি রাখা এবং নির্দিষ্ট পোশাক পরার নির্দেশ দিয়েছে। অন্যথায় চাকরিচ্যুত করা হতে পারে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, কট্টরপন্থী ইসলামি প্রশাসনটির দ্বারা আরোপিত নতুন নিষেধাজ্ঞাগুলোর মধ্যে সর্বশেষ সংযোজন এটি।জানা গেছে, কর্মচারীরা নতুন নিয়মগুলো মেনে চলছে কি-না তা পরীক্ষা করার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা সোমবার (২৮ মার্চ) থেকে সরকারি অফিসের প্রবেশপথে টহল দিচ্ছে। কর্মচারীদের দাড়ি না কামানো এবং লম্বা, ঢিলেঢালা জামা ও ট্রাউজারের সঙ্গে টুপি বা পাগড়ি পরার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া, সঠিক সময়ে নামাজ পড়া নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। কর্মীদের বলা হয়েছে, তারা এখন থেকে দাড়ি না রাখলে অফিসে প্রবেশ করতে পারবেন না এবং ড্রেস কোড না মানলে বরখাস্ত করা হবে। তবে, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত নৈতিকতা সংক্রান্ত মন্ত্রণালয়ের কোনো মুখপাত্র মন্তব্য করেননি। এর আগে, গত সপ্তাহে কোনো পুরুষ ছাড়া নারীদের বিমানে ভ্রমণ নিষিদ্ধ করে তালেবান সরকার এবং তারা প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী মেয়েদের স্কুল খুলতে ব্যর্থ হয়।এছাড়া, গতকাল রবিবার দেওয়া আরেকটি নির্দেশে দেশটির উদ্যানগুলোয় সপ্তাহে তিন দিন নারীদের ও সপ্তাহের বাকি চার দিন পুরুষদের প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ বিবাহিত দম্পতি কিংবা পরিবারের সদস্যরাও এখন একসঙ্গে পার্কে বেড়াতে যেতে পারবে না। তালেবান প্রশাসন আফগানদের ওপর ইসলামী আইনের কঠোর ব্যাখ্যা জোরদার করার জন্য ও পশ্চিমা বিশ্বের কড়া সমালোচনার সম্মুখীন হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category