আজ ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

??

কিশোরগঞ্জে এলজিইডির রাস্তা সংস্কার কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ

প্রতিনিদি আফজালুর রহমান উচ্চল

কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় এলজিইডির রাস্তা সংস্কার কাজে নি¤œমানের সামগ্রী ব্যবহার করার অভিযোগ উঠেছে। সদর উপজেলার মারিয়া ইউনিয়নের বিসিক শিল্প নগরী থেকে বিন্নাটি ইউনিয়নের কামালিয়ারচর গ্রাম ভায়া রামপুর বাজার পর্যন্ত রাস্তার সংস্কার কাজ চলমান রয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করায় স্থানীয় লোকজন ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ।
জানা যায়, উপজেলার বিন্নাটি ইউনিয়নের ধনাইল,কুট্টাঘর, কামালিয়ারচর, রামপুর, দাপুনিয়া সাহেদলসহ ৮/১০টি গ্রামের জনসাধারণের যাতায়াতে এ সড়কটিই ব্যবহার করে থাকেন।
জেলা ও উপজেলা সদরসহ স্কুল,কলেজ, মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে হলে গ্রামগুলো থেকে বের হয়ে আসার এটাই একমাত্র রাস্তা। বিগত প্রায় ৫-৬ বছর ধরে রাস্তার বিভিন্ন স্থানে বড়-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে রাস্তাটি চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়ে। এরপর থেকে এ রাস্তা সংস্কারের দাবী জানিয়ে আসছিল স্থানীয় জনসাধারণ।
গত বছরের উক্ত রাস্তা সংস্কারের দাবীতে বিক্ষোভ করে কামালিয়ারচর উচ্চ বিদ্যালয়সহ স্থানীয় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ। এতে নড়েচড়ে বসে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তড়িৎ গতিতে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর বিসিক শিল্প নগরী থেকে রামপুর বাজার পর্যন্ত ৪ হাজার ৬ শত ৩০ মিটার রাস্তা মেরামতের জন্য ২ কোটি ৮১ লক্ষ টাকার টেন্ডার আহবান করে। পরে কাজটি এমএডাব্লিও-জেবি-আইআরবি নামে দুটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে সংস্কার কাজের কার্যাদেশ পায়। কার্যাদেশ অনুযায়ী রাস্তার দুই পার্শে ২ফুট করে সম্প্রসারনের নির্দেশনা রয়েছে। দুই পার্শে¦র সম্প্রসারিত অংশে পিকেট দিয়ে (১নং ইট) ৬ ইঞ্চি পূরু না করে নাম্বার বিহীন ইট ভাটার নি¤œমানের রাবিস দিয়ে দায়সারা কাজ করা হচ্ছে। পূরু রাস্তাটির বর্তমানের কার্পেটিং উঠিয়ে রোলার দিয়ে কম্পেকশন করণ এবং কম্পেকশন শেষে পূরু রাস্তায় ১ ইঞ্চি কাপেটিং করার নির্দেশনা রয়েছে কার্যাদেশে।
কামালিয়ারচর নামাপাড়া এলাকার আলী হাজী বাড়ির আল আমিন, খায়রুল ইসলাম, কবির মিয়া জানান, কাজ চলাকালিন সময় নি¤œমানের সামগ্রী ব্যবহারের বিরুদ্ধে তারা প্রতিবাদ করায় ঠিকাদারের লোকজন তাদেরকে মামলা হামলার হুমকী দিচ্ছে। রাস্তার উপকারভোগী স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ,কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মালিক সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের ভাই। তাই সংস্কার কাজে নি¤œমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ থাকার পরও ক্ষমতার প্রভাব দেখিয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সংস্কার কাজটি করছেন।
এ ব্যাপারে এলজিইডির সদর উপজেলা প্রকৌশলী জোনায়েত আলম দৈনিক জনতাকে জানান, রাস্তা নির্মাণে স্থানীয়দের অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখে ভালোভাবে রাস্তা সংস্কারের কাজটি সম্পন্ন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category