আজ ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

টিকা নেয়ার ৪২ দিন পর কিশোরগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন করোনায় আক্রান্ত

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি সাদেক মিয়া: টিকা নেয়ার ৪২ দিন পর কিশোরগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. মোস্তাফিজুর রহমান করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন। সোমবার (২২ মার্চ) সন্ধ্যায় প্রকাশিত নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে তাঁর কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি জেলায় ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম শুরু হওয়ার দিনই তিনি করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছেন। কয়েকদিন ধরে তিনি অসুস্থতা বোধ করলে রোববার (২১ মার্চ) তিনি কোভিড-১৯ পরীক্ষার নমুনা দেন।

কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, করোনা উপসর্গ দেখা দেয়ার পর ডেপুটি সিভিল সার্জন ছুটি নিয়ে আইসোলেশনে রয়েছেন। গতকালের চেয়ে তার আজকের অবস্থা তুলনামুলকভাবে ভালো।

এদিকে এই ২৪ ঘন্টায় জেলায় মোট ৬ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। ফলে জেলায় বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৯ জন।

সর্বশেষ সোমবার (২২ মার্চ) সন্ধ্যায় প্রকাশিত ফলাফলে করোনা শনাক্ত হওয়া ৬ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর ও ভৈরব উপজেলায় ২ জন করে মোট ৪ জন এবং তাড়াইল ও পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১ জন করে মোট ২ জন শনাক্ত হয়েছেন।

কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরটি-পিসিআর ল্যাবে মোট ৯৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় এই ৬ জনের পজেটিভ এসেছে।

এই ২৪ ঘন্টায় জেলায় কোন সুস্থ নেই।

জেলায় বর্তমানে করোনা আক্রান্ত মোট ৯৯ জনের মধ্যে ৪৮ জনই ভৈরব উপজেলার।

বাকি ৫১ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ১৯ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ২ জন, তাড়াইল উপজেলায় ৪ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ৫ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৯ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৫ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ৪ জন এবং অষ্টগ্রাম উপজেলায় ৩ জন রয়েছেন।

জেলার বাকি ৪টি উপজেলা হোসেনপুর, নিকলী, ইটনা ও মিঠামইনে বর্তমানে করোনা আক্রান্ত কেউ নেই।

এদিকে গত ৭ ফেব্রুয়ারি ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর থেকে মঙ্গলবার সোমবার (২২ মার্চ) পর্যন্ত জেলায় মোট এক লাখ ২৬০ জন রেজিস্ট্রেশন করেছেন। এর মধ্যে ৫৮ হাজার ৯৬৭ জন টিকা নিয়েছেন।

এর মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় ২ হাজার ৯১৩ জন রেজিস্ট্রেশন করেছেন এবং ৮৩৬ জন টিকা নিয়েছেন।

কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য অনুযায়ী, জেলায় এখন পর্যন্ত মোট ৩ হাজার ৭০২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৫৩৭ জন। এছাড়া এই সময়ে ৬৬ জন করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category