আজ ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বড় অঙ্কের ঋণ দিতে চাচ্ছে গ্লোবাল মাইডাস, প্রস্তাব ইআরডিতে

প্রতিনিধি আবুবক্কর সাব্বির: বড় অঙ্কের ঋণ দিতে আগ্রহ দেখিয়েছে গ্লোবাল মাইডাস। আন্তর্জাতিক সংস্থাটি এরইমধ্যে বড় অবকাঠামো নির্মাণে ঋণ দেওয়ার আগ্রহ দেখিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে (ইআরডি) চিঠি দিয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, এ ঋণের পরিমাণ এক লাখ কোটি টাকার বেশি হতে পারে।

চিঠি প্রসঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের এশীয় উইংয়ের প্রধান (যুগ্ম সচিব) শাহরিয়ার কাদের সিদ্দিকী বলেন, গ্লোবাল মাইডাস নানা প্রকল্পে বড় অঙ্কের ঋণ দিতে চায়। এ সংক্রান্ত একটা চিঠি দিয়েছে তারা। এটা পর্যালোচনার জন্য সংশ্লিষ্ট ডেস্কে পাঠানো হয়েছে।

ইআরডিকে পাঠানো চিঠিতে গ্লোবাল মাইডাস জানিয়েছে, বড় ধরনের গ্রিন ফিল্ড প্রকল্প, রেলওয়ে, মেট্রোরেল, বিমানবন্দর উন্নয়ন, বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপন, বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ এবং আইটি পার্কের মতো বড় প্রকল্পে ঋণের প্রস্তাব দিচ্ছে গ্লোবাল মাইডাস। বিভিন্ন ধরনের ঋণের পাশাপাশি সরকারি এবং বেসরকারি খাতে বন্ডে বিনিয়োগও করেছে গ্লোবাল মাইডাস। সংস্থাটি সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের প্রকল্পে (পিপিপি) আগ্রহের কথাও জানিয়েছে।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, অর্থ সংকটে ভুগছে কয়েকশ’ প্রকল্প। নামমাত্র টাকা দিয়ে প্রকল্প বাঁচিয়ে রাখা হচ্ছে। রাজস্ব ঘাটতির কারণে সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পে অর্থ সংকট তৈরি হয়েছে। এ অবস্থায় গ্লোবাল মাইডাসের বড় ঋণ প্রস্তাবকে গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা যেতে পারে। এ ধরনের ঋণ নিতে না পারলে জিডিপি প্রবৃদ্ধি লক্ষ্য অর্জন কঠিন হয়ে পড়বে।

এদিকে, বাংলাদেশ ব্যাংকের একাধিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সরকার প্রতিদিন ব্যাংকিং ব্যবস্থা থেকে বিপুল অঙ্কের ঋণ নিচ্ছে। এভাবে ঋণ নিতে থাকলে সাধারণ গ্রাহক ঋণ পাবে না। একইসঙ্গে ব্যাংকিং ব্যবস্থা পুরো ভেঙে পড়বে। এসব দিক বিবেচনায় স্বল্প সুদে গ্লোবাল মাইডাসের মতো আর্ন্তজাতিক প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ নেওয়া যেতে পারে।

ইআরডি সূত্রে জানা গেছে, গ্লোবাল মাইডাসের প্রস্তাবিত ঋণের গ্রেস পিরিয়ড প্রকল্পভেদে এক থেকে দুই বছর। ২৫ বছরের মধ্যে পুরো ঋণ শোধ করতে হবে। এ ঋণের বিপরীতে সর্বোচ্চ দুই শতাংশের কম সুদ পরিশোধ করতে হবে। যা এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) এবং ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশনসহ (আইএফসি) আরও কয়েকটি সংস্থার তুলনায় কম।

গ্লোবাল মাইডাসের বাংলাদেশের প্রধান শেখ সরওয়ার বলেন, সরকারের বাজেট ঘাটতির চেয়েও বেশি ঋণ দিতে আগ্রহ রয়েছে। এরইমধ্যে ইআরডিকে জানানো হয়েছে। নেপাল, সিঙ্গাপুর, ভারতসহ কয়েকটি দেশে বড় অঙ্কের ঋণ দিয়েছে গ্লোবাল মাইডাস। এখন বাংলাদেশে স্বল্প সুদে ঋণ দিতে আগ্রহ আমাদের। ঋণে সুদহার এক থেকে দুই শতাংশের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category