আজ ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

হোসেনপুরে দুই ভাইয়ের জমি নিয়ে দ্বন্দ্বের জরে রাস্তায় জলাবদ্ধতা এলাকাবাসীর ভোগান্তি

 বিশেষ প্রতিনিধি: আফজাল রহমান উজ্জল

কিশোরগঞ্জ জেলার হোসেনপুর উপজেলার ২ নং সিদলা ইউনিয়নের ধলাপাতা গ্রামে দুই ভাইয়ের জমি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে একমাত্র চলাচলের রাস্তায় প্রতিবন্ধকতার ফলে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় যে ধলাপাতা গ্রামের একমাত্র কাঁচা রাস্তা টি মাজিম উদ্দিন ও রইস উদ্দিন উভয় পিতা মৃত: জাহেদ আলী। দুই ভাইয়ের জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে গ্রামের রাস্তাটিতে দুইপাশে মাটি ভরাট করে প্রতিবন্ধকতার ফলে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ার কারণে শত শত মানুষের চলাফেরার ভোগান্তি বেড়েছে। গ্রামটি কৃষিপ্রধান হওয়ার কারণে প্রায় প্রত্যেকেরই একটি করে পানের বরজ রয়েছে। রাস্তাটিতে জলাবদ্ধতার কারণে পানের বরজ পানিতে তলিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এতে করে কৃষক ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হবেন। গ্রামটির শত শত মানুষের দাবি মাজিম উদ্দিন ও রইছ উদ্দিন দুই ভাইয়ের দ্বন্দ্ব জমিসংক্রান্ত ই হোক আর পারিবারিক ই হোক আমরা রাস্তাটি দিয়ে নির্বিঘ্নে চলাফেরা করতে চাই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানান মাজিম উদ্দিন রাস্তাটিতে মাটি কেটে উঁচু করে দেওয়ার কথা ছিল। এলাকার কৃষক বাচ্চু মিয়া বলেন মাজিম উদ্দিন ও তার ভাই রইসউদ্দিন দুজনের মধ্যে দ্বন্দ্ব রয়েছে তাই বলে আমরা কেন রাস্তা দিয়ে ভালভাবে চলাফেরা করতে পারবোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি রাস্তাটির জলাবদ্ধতা দূর করে চলা করার উপযোগী করে দেওয়ার জন্য। কৃষক রতন মিয়া বলেন রাস্তায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ার ফলে আমার আয় রোজগারের একমাত্র পানের বরজ ধ্বংস হওয়ার উপক্রম হয়েছে। মাজিম উদ্দিন ও তার ছেলে জসিম উদ্দিন জানান রইস উদ্দিন এর কাছে আমাদের জমি জমার পাওনা দাওনা রয়েছে। রইস উদ্দিন বলেন আমার বড় ভাই মাজিম উদ্দিন এর কাছে আমার জমি পাওনা আছে। ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজ উদ্দিন বলেন সামাজিক ভাবে বিষয়টি নিয়ে মীমাংসা হয়েছিল পরবর্তীতে মাজিম উদ্দিন প্রত্যাখ্যান করায় রাস্তা দিয়ে চলাচলে এলাকার মানুষের ভোগান্তি চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। তিনি আরো বলেন এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category